Saturday, June 12, 2021
Home ঝিনাইদহ করোনায় মানসিক চাপ মুক্ত থাকতে করনীয়

করোনায় মানসিক চাপ মুক্ত থাকতে করনীয়

বর্তমান পরিস্থিতিতে করোনা সারা বিশ্বব্যাপী মহামারী আকার ধারণ করেছে। বাংলাদেশও এর ব্যতিক্রম নয়। এমন অবস্থায় সকলে ভীতির মধ্যে আছে একথা নিঃসন্দেহে বলা যায়। আর এ ভীতি থেকেই মনের উপর বাড়তি চাপ, ক্লান্তিবোধ, অবসাদে ভোগা, অল্পতেই রেগে যাওয়া বা আতংকিত বোধ করা স্বাভাবিক।

করোনাকালীন এ সময়ে সরাসরি রোগী দেখতে গিয়ে বা টেলিমেডিসিন সেবা দিতে গিয়ে একটা জিনিস উপলব্ধি করতে পেরেছি যে সবাই মানসিক চাপের মধ্যে আছে। এক ধরনের অস্থিরতা বিরাজ করছে সকলের মনে।

আমি প্রথমেই আপনাদের আশার বানী শোনাতে চাই এই বলে যে এই করোনা ভাইরাস সংক্রমণ হলে ৮০% মানুষ বাড়িতে চিকিৎসা নিয়ে বা শুধু চিকিৎসকের পর্যবেক্ষণে থেকে সুস্থ হয়ে যাবেন। আর বাকী ২০ % রোগীকে হাসপাতালে নিতে হবে। তাদের মধ্যে ৫-৬ % রোগীর ক্ষেত্রে আই সি ইউ সাপোর্ট লাগবে। এক্ষেত্রে স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলাই আমাদের জন্য যথেষ্ট। যা হোক এখন আসল কথায় আসি মানসিকভাবে কিভাবে নিজেকে ভালো রাখবেন এ সময়।

‌আপনি আপনার মনকে নিয়ন্ত্রণ করতে পারবেন। আমরা যে একটা দুর্যোগকালীন মুহুর্ত পার করছি এ বিষয়টা আপনাকে মেনে নিতে হবে। আর সরকারি বিধি অনুযায়ী নিয়ম মেনে চলতে হবে।

‌পরিবারের সদস্যদের সাথে সহানুভূতিশীল আচরণ করতে হবে। এ পরিস্থিতিতে যারা বয়স্ক, শিশু বা যারা বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত তাদের নিয়ে সবাই খুব দুঃশ্চিতার মধ্যে রয়েছে। তাদের সাথে ভালো ভাবে কথা বলুন। তাদেরকে সময় দিন।

‌আপনার মন ভালো রাখতে যার সাথে আপনার কথা বলতে ভালো লাগে তার সাথে কথা বলুন। এসময়টায় ভার্চুয়াল যোগাযোগটা বাড়িয়ে দিন।স্বজন ও বন্ধুদের সাথে যোগাযোগ করুন। অনেক সময় ব্যস্ততার কারনে পরিবারের অনেকের সাথেই যোগাযোগ রাখতে পারেন না। এ সময়টায় মোবাইলের মাধ্যমে কথা বলুন।তাতে করে মানসিক ও পারিবারিক বন্ধন আরো দৃঢ় হবে।

‌নিজের পছন্দের কাজে সময় দিন। হতে পারে বই পড়া, ছবি আকা, হাতের কাজ করা, বাগান করা। এভাবে নিজেকে ব্যস্ত রাখুন।

‌নিয়মিত শরীর চর্চা করুন। করোনা ভাইরাস প্রতিরোধে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি করতে শরীরচর্চা অত্যাবশ্যক । সেই সাথে সবুজ শাকসবজি সহ পুষ্টিকর খাবার খেতে হবে। প্রতিদিন কমপক্ষে আড়াই লিটার পানি খেতে হবে। এতে শরীরের ক্লান্তিবোধ কম হবে। প্রতিদিন আট ঘন্টা ঘুমান।

‌ধূমপান, তামাকজাত দ্রব্য বা অন্য কোন নেশাজাতীয় দ্রব্য গ্রহন করে আপনার মনের চাপ দূর করার চেষ্টা করবেন না। নিজের উপর যদি খুব বেশি মানসিক চাপ বোধ করেন তাহলে চিকিৎসকের সাথে কথা বলুন। এই মুহুর্তে বাসায় বসে থেকেই বিনামূল্যে আপনি ২৪ ঘন্টা টেলিমেডিসিন সেবা পেতে পারেন।

‌ফেসবুক ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক থাকুন। সবসময় পজিটিভ চিন্তা করুন।নেতিবাচক পোস্ট বা কমেন্ট করা থেকে বিরত থাকুন। কেননা এতে আমাদের মনে অস্থিরতা বাড়ে।মানুষকে ধন্যবাদ বা কৃতজ্ঞতা জানিয়ে পোস্ট করুন। দেখবেন মানসিকভাবে ভালো থাকবেন।

‌সঠিক তথ্য সংগ্রহ করুন। তথ্যের এমন একটি বিশ্বাসযোগ্য বিজ্ঞানসম্মত উৎস ঠিক করে রাখুন যে কেবলমাত্র সেগুলোর উপর ভরসা করবেন- যেমন বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার ওয়েবসাইট বা সরকার হতে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠান।

‌দুঃশ্চিন্তা বা অস্থিরতা কমাতে পরিবারের সবাই মিলে করোনা ভাইরাস সংক্রান্ত বিপর্যস্তকর সংবাদ শোনা বা দেখা থেকে বিরত থাকুন।

সবাই ভালো থাকুন। সুস্থ থাকুন। স্বাস্থ্য বিধি মেনে চলুন। শারিরীক দূরত্ব মেনে চলুন।

লেখক-ডাঃ মোঃ লিমন পারভেজ
মেডিকেল অফিসার , ঝিনাইদহ সদর হাসাপাতাল

- Advertisment -

সব খরব

একসঙ্গে দুইয়ের বেশি বাচ্চা জন্ম দিয়ে বিশ্ব রেকর্ড

নিজস্ব প্রতিবেদক- যমজ বাচ্চা প্রসবের ঘটনা এত বেশি ঘটছে যে এখন আর বিস্ময়কর লাগে না। আমরা তখনই অবাক হই যখন শুনি কোনো...

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়লো

নিজস্ব প্রতিবেদক- করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে সাধারণ ছুটির মেয়াদ আরেক দফা বাড়লো। আগামী ৩০ জুন পর্যন্ত এই ছুটি বাড়ানো হয়েছে।

বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস আজ

সমীকরণ প্রতিবেদক- আজ বিশ্ব শিশুশ্রম প্রতিরোধ দিবস। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য— ‘মুজিববর্ষের আহ্বান, শিশুশ্রমের অবসান’। বিশ্ব শিশু শ্রম প্রতিরোধ...

খুলনায় করোনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু

সমীকরণ প্রতিবেদক- খুলনায় করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে আরও ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। গত ২৪ ঘণ্টায় (শুক্রবার-শনিবার) করোনা হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায়...