Saturday, July 11, 2020
Home আন্তর্জাতিক একদিনে আক্রান্ত ৮৮ হাজার, মৃত ৩৪৪৫

একদিনে আক্রান্ত ৮৮ হাজার, মৃত ৩৪৪৫

সমীকরণ ডেস্ক- করোনাভাইরাস মহামারিতে বিপর্যস্ত বিশ্ব। এর মধ্যে কয়েকটি দেশে এর প্রকোপ ভয়ংকর রূপ নিয়েছে। সোমবার একদিনে বিশ্বে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ৮৮ হাজার ৮৫৮ জন, মৃত্যু হয়েছে ৩৪৪৫ জনের। এছাড়া একদিনে বিশ্বে করোনা থেকে সুস্থ হয়েছেন ৪৯ হাজারের বেশি করোনা রোগী। এ তথ্য জানিয়েছে করোনাভাইরাস নিয়ে লাইভ আপডেট দেয়া ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটার।

মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত করোনায় বিশ্বব্যাপী নিহতের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে তিন লাখ ২০ হাজার ১৩৪ জনে এবং আক্রান্তের সংখ্যা ৪৮ লাখ ৯১ হাজার ৩২৬ জন। অপরদিকে ১৯ লাখ ৭ হাজার ৪১৩ জন চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

গত বছরের ডিসেম্বরে চীন থেকে এই মহামারি শুরু হলেও এখন ইউরোপ এবং যুক্তরাষ্ট্রে আরও ভয়াবহ আকার নিয়েছে। আক্রান্ত ও নিহতের সংখ্যায় সবার ওপরে রয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সেখানে এখন পর্যন্ত করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৫ লাখ ৫০ হাজার ২৯৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৯১ হাজার ৯৮১ জনের। সুস্থ হয়েছেন ৩ লাখ ৫৬ হাজার ৩৮৩ জন।

আক্রান্তের দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে চলে এসেছে রাশিয়া। সেখানে এখন পর্যন্ত আক্রান্তের সংখ্যা ২ লাখ ৯০ হাজার ৬৭৮ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৭২২ জন।

স্পেনে আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৭৮ হাজার ১৮৮ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ২৭ হাজার ৭০৯ জনের।

মৃত্যুর দিক দিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে রয়েছে ব্রিটেন। দেশটিতে এখন পর্যন্ত নিহত হয়েছেন ৩৪ হাজার ৭৯৬ জন, আক্রান্ত হয়েছেন ২ লাখ ৪৬ হাজার ৪০৬ জন। এছাড়া ইতালিতে নিহত হয়েছেন ৩২ হাজার ৭ জন।

চীনের উহান থেকে বিস্তার শুরু করে গত চার মাসে বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়েছে করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯)। চীনে করোনার প্রভাব কমলেও বিশ্বের অন্য কয়েকটি দেশে মহামারি রূপ নিয়েছে।

করোনাভাইরাস প্রাদুর্ভাব নিয়ন্ত্রণে বিশ্বের বিভিন্ন দেশে নেয়া হয়েছে সতর্কতামূলক পদক্ষেপ। অধিকাংশ দেশেই মানুষের মধ্যে সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখা নিশ্চিত করতে মানুষের চলাফেরার ওপর বিভিন্ন মাত্রায় নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে কর্তৃপক্ষ। কোনো কোনো দেশে আরোপ করা হয়েছে সম্পূর্ণ লকডাউন, কোথাও কোথাও আংশিকভাবে চলছে মানুষের দৈনন্দিন কার্যক্রম। এ ধরনের পদক্ষেপ নেয়ার কারণে পৃথিবীর বিভিন্ন এলাকার প্রায় অর্ধেক মানুষ চলাফেরার ক্ষেত্রে কোনো না কোনো মাত্রায় নিষেধাজ্ঞার ওপর পড়েছেন।

তবে এরই মধ্যে কোনো কোনো দেশে করোনার প্রভাব কমে যাওয়া লকডাউন শিথিল ও নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছে।

২০১৯ সালের ডিসেম্বরের শেষে চীনের হুবেই প্রদেশের উহান শহরে প্রথম করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। নিউমোনিয়ার মত লক্ষণ নিয়ে নতুন এ রোগ ছড়াতে দেখে চীনা কর্তৃপক্ষ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে সতর্ক করে। এরপর ১১ জানুয়ারি প্রথম একজনের মৃত্যু হয়।

করোনাভাইরাস মূলত শ্বাসতন্ত্রে সংক্রমণ ঘটায়। এর লক্ষণ শুরু হয় জ্বর দিয়ে, সঙ্গে থাকতে পারে সর্দি, শুকনো কাশি, মাথাব্যথা, গলাব্যথা ও শরীর ব্যথা। সপ্তাহখানেকের মধ্যে দেখা দিতে পারে শ্বাসকষ্ট। উপসর্গগুলো হয় অনেকটা নিউমোনিয়ার মত। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা ভালো হলে এ রোগ কিছুদিন পর এমনিতেই সেরে যেতে পারে। তবে ডায়াবেটিস, কিডনি, হৃদযন্ত্র বা ফুসফুসের পুরোনো রোগীদের ক্ষেত্রে ডেকে আনতে পারে মৃত্যু।

- Advertisment -

সব খরব

চিত্রশিল্পী ডালিয়া সুলতানা সনি করোনাকালে কিভাবে চলছেন তার জীবন গল্প

  সমীকরণ প্রতিবেদক- ডালিয়া সুলতানা সনি  একজন চিত্রশিল্পী। তিনি রাজশাহী ভার্সিটি চারুকলা ইনস্টিটিউট থেকে পড়াশোনা করেছেন । ছোট কাল...

কি করে ভুলবো তোমায় —উৎসর্গ –লিজা

তুমি ভেবেছিলে তুমি জিতে গেছো?আমাকে একা করে রেখে গিয়ে? হঠাৎ যখন ব্যথ্যায় 'মা ' করে...

ঝিনাইদহে করোনায় খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য পরিচালকের বোনসহ উপসর্গে তিনজনের মৃত্যু

ঝিনাইদহ অফিস- ঝিনাইদহে দিন যতই যাচ্ছে ততই করোনার আক্রান্ত ও মৃত্যুর সংখ্যা হু হু করে বাড়ছে। মানুষ সচেতন...

‘আমরা চোর ধরে চোর হয়ে যাচ্ছি’ সমীকরণ প্রতিবেদক: ‘টেস্টের জন্য খুব ভালো টেকনিক্যাল লোক দরকার। তাদের রোগীর বাড়িতে যেতে...